আমরা নাকি পীরকে মারার কারণে মারা গেছি !

0

বিয়ানীবাজার ভিউ২৪ ডটকম, ১৬ মে ২০১৮,

বিয়ানীবাজারে এক ভন্ড জুতা পীরের আবির্ভাব ঘটেছিল ২০০৮ সালে। ভন্ড পীরের জুতা পিটা খেয়ে অনেক আহত হতেন। ২০০৮ সালে বিনীবাজার আস্তানা গড়লে রাতারাতি জনপ্রিয়তার পাত্র হন দিনের বেলায় কবিরাজি ফু-ফা রাতের অন্ধকারে চলতো ড্র্যাগ সেবন ও দেহ ব্যবসা। কেউ প্রতিবাদের সাহস পেতো না ।

তার সাথে ছিল বিনীবাজারের উচ্চ পর্যায়ের মানুষ গুলো । যার ভণ্ডামির মুখোশ উন্মোচন করার কারনে আমি ও আবুতাহের ভাইকে অনেক জামেলা পোহাতে হয়েছিল । তার সাথে বিনীবাজারের সিন্ডিকেট বাহিনী ও ড্র্যাগ ব্যাবসায়ীদের যে হাত ছিল সেটি জানাছিলোনা ।

তার মুখোশ উন্মোচন করার কারনে তাদের বিরাট ক্ষতি হয়ে যায় ।পরে তাকে উত্তম মধ্যম দিয়ে পুলিশে দেওয়া হলে রাত তিনটার দিকে ভিবিন্ন এলাকা থেকে ফুলতলী হাফিজিয়া মাদ্রসার ছাত্র ও শিক্ষক থানা গেরাও করে তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় ।

কিছু দিন পর আমি এবং তাহের ভাই লন্ডনে চলে আসলে তারা গুজব ছড়ায় আমরা নাকি পীরকে মারার কারনে মারা গেছি ।
কিছুদিন আগে শুনলাম সে নাকি তার অত্র এলাকায় আবার কবিরাজি ব্যবসা শুরু করছে ।

সচেতনতার জন্য লেখাটির মূল উদ্দেশ্য এসব ভন্ড হুজুরদের কাছ থেকে দূরে থাকুন ।

ওর একটি ভিডিও ক্লিপ ও অনেক নিউজ পেপার আমার কাছে আছে সময় পেলে আপলোড করবো ।

-আব্দুস সামাদ, ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

Share.

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.