Beanibazar View24
Beanibazar View24 is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and It focuses most Beanibazar.

নিউইয়র্কে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আজান দেওয়া সিলেটের গিয়াস উদ্দিনের মৃত্যু


ব্রঙ্কসের বিশিস্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন।নিউইয়র্কে যে ক’জন লোক কমিউনিটির বর্তমান কোলাহলের সূত্রপাত করেন তিনি এর মধ্যে একজন।

করনার লক ডাউন শুরু হলে ব্রঙ্কসের সড়কপথে অন্যদের সাথে দাঁড়িয়ে আজান দিয়েছিলেন। চেয়েছিলেন আল্লাহর অনুগ্রহ।

কমিউনিটির অন্তপ্রাণ মানুষ ছিলেন গিয়াসউদ্দিন। করোনার ছোবলে ১০ এপ্রিল শুক্রবার ভোর রাতের দিকে তিনি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

শেষ রাতের দিকেই সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে,বিশিস্ট ব্যবসায়ী,ছাতক সমিতির সাবেক সভাপতি ,স্টারলিং বাংলাবাজার বিজনেস এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট,বাংলা বাজার জামে মসজিদের সভাপতি,এ এ ডাবল ডিসকাউন্ট সহ বেশ কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন আর আমাদের মাঝে নেই।(ইন্না লিল্লাহে ….রাজিউন) তিনি ১০ এপ্রিল রাত ২.১৫ মিনিটে ব্রঙ্কসের আইনস্টাইন হাসপাতালে ইন্তিকাল করেছেন।তাঁর ছেলে আমিন উদ্দীন,কমিউনিটি নেতা আলমাস আলী মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তিনি স্ত্রী,২ ছেলে ১ মেয়ে ৪ ভাই ২ বোন সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।তাঁর দেশের বাড়ি বৃহত্তর সিলেটের ছাতকে।তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন দীর্ঘ ৩৮ বছর যাবত প্রবাস জীবন যাপন করছিলেন।১৯৭৮ সালে তিনি বাংলাদেশ থেকে পাড়ি জমান ইরানে।সেখান থেকে জার্মানীতে।তারপর ১৯৮২ সালে তিনি যুক্তরাস্ট্রে অভিবাসী হন।

আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীনের প্রবাসে ৩৮ বছর পুর্তি উপলক্ষে গত ২৬ জানয়ারি ব্রঙ্কসে বাংলাদেশ-আমেরিকান স্টাডি সেন্টার এক বর্নাঢ্য সংবর্ধনার আয়োজন করে।অনুষ্ঠানে কাউন্সিলম্যান রুবিন ডিয়াজ সিনিয়র,সাবেক এসেম্বলিম্যান এরিক স্টিভভেনসন সহ কমিউনিটির বিশিস্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্হিত ছিলেন।

কমিউনিটিতে বিশেষ অবদানের জন্য তাঁকে ক্রেস্ট ,প্রক্লেমেশান প্রদান করে সম্মানিত করা হয়।কমিউনিটির বিশিস্ট ব্যক্তিবর্গ এবং নানা সংগঠন তাকে অ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করে ।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি পবিত্র মক্কায় উমরাহ পালন ও মদীনায় নবী মোহাম্মদ (সা:) এর রওজা মোবারক জিয়ারত করেন। মার্চ মাসের শেষের দিকে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.