Beanibazar View24
Beanibazar View24 is an Online News Portal. It brings you the latest news around the world 24 hours a day and It focuses most Beanibazar.

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বললেন শনাক্ত ২৯ জন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে ৩৫ জন


দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দুধরনের তথ্য দিয়েছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী যেখানে বলছেন ২৯ জন শনাক্ত করা হয়েছে, সেখানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ৩৫ জন। পাশাপাশি মৃতের সংখ্যা নিয়েও এসেছে দুইধরনের তথ্য।

সোমবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স এন্ড সার্জনস (বিসিপিএস) ভবনে সম্মেলন কক্ষে সরকারি ও বেসরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা ও প্রতিনিধিদের সঙ্গে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিষয়ে জরুরি বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছিলেন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৯ জন। তবে এর দুইঘণ্টা পর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে ৩৫ জন রোগী শনাক্তের কথা জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ব্রিফিংয়ে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টার ৩৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, এবং ৪৬৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী একধরনের তথ্য দিয়েছেন আবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দিচ্ছে অন্য তথ্য- এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকেরা জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমের (এমআইএস) পরিচালক ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী যখন তথ্য দেন তখন পর্যন্ত রোগীর সংখ্যা তেমন ছিল। আমরা তথ্য সবসময় হালনাগাদ করি বলে আমাদের কাছে থাকে সর্বশেষ তথ্য, এবং এটাই সর্বশেষ তথ্য।

এরবাইরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওই বৈঠকে নতুন মৃতের সংখ্যা ৪ জন বললেও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে জানানো হয় প্রকৃতপক্ষে মৃতের সংখ্যা তিন। এনিয়ে কেন এই বিভ্রান্তি এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. মো. হাবিবুর রহমান বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মহোদয় বৈঠক চলাকালে ফোন দিয়েছিলেন। ওইসময় একজনের নামের বানান নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দেওয়ায় এই ভুল হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে মৃতের সংখ্যা হবে তিনজন।

ফলে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১২৩ জনে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, নতুন শনাক্তের মধ্যে ৩০ জন পুরুষ এবং ৫ জন নারী।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে তিনজনকে শনাক্ত করা হয়। তখন বলা হয়, এই তিনজনের মধ্যে দুজন ইতালি থেকে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন; তাদের কাছ থেকে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত দেশে পাঁচজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গত ১৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.