প্রবাস

অস্ট্রেলিয়ার লেবার পার্টির পলিসি ফোরামের সদস্য প্রথম বাংলাদেশের মেয়ে







অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস লেবার পার্টির পলিসি ফোরামের নির্বাচনে বামপন্থী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি সাবরিন ফারুকী উস্রী। নির্বাচনী কার্যক্রম গত ৯ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই (৩ সপ্তাহব্যাপী) পর্যন্ত চলে। সম্প্রতি তার এ জয়ে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়।



দলের এই নির্বাচনে ভোট প্রদান করা হয় পোস্টাল ব্যালেট ও পেপার ব্যালেটের মাধ্যমে। আর শুধুমাত্র নিউ সাউথ ওয়েলস লেবার পার্টির সদস্যরাই এ ভোট প্রদান করতে পারে। মোট ১৬ জন সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্যে বামপন্থী দলের ৮ জন ও ডানপন্থী দলের ৮ জন।



নিউ সাউথ ওয়েলস পলিসি ফোরামের সদস্যারা ট্রেড ইউনিয়ন এবং সংসদ সদস্যদের সাথে মিলে বিভিন্ন পলিসি তৈরিতে কাজ করবে। লেবার দলের আধুনিকায়ন ও কার্যকারিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এই নির্বাচনের আয়োজন। লেবার দল অস্ট্রেলিয়াতে বর্তমানে বিরোধী দল এবং পূর্বে এ দল কয়েক বার সরকার পরিচালনা করেছিলেন। এই পলিসি ফোরাম এখন থেকে সক্রিয়ভাবে কাজ করবে নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে।



গত ২৭ আগস্ট নিউ সাউথ ওয়েলস লেবার পার্টির কেন্দ্রীয় অফিসে প্রথম মিটিংয়ে সাবরিন ফারুকি অন্যান্যদের সাথে প্রতিনিধিত্ব করেন। ডানপন্থী দল থেকে নির্বাচিত হয়েছেন ব্যাংকসটাউন ও ক্যান্টারবারী সিটি কাউন্সিলের মেয়র কার্ল আসফার।

সাবরিন ফারুকী উস্রী বলেন, প্রতিটা জয়ই আনন্দের। আর নিউ সাউথ ওয়েলস লেবার পার্টির পলিসি ফোরামের বামপন্থী সদস্য নির্বাচিত হয়ে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।’ এ দলে যেন আরও গতিশীলতা আনতে পারি সে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।



উল্লেখ্য, উস্রী গত ২৩ মার্চ অনুষ্ঠেয় অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য সংসদ নির্বাচনে লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে আইন পরিষদের একটি আসনে লড়েছেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব সিডনি থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন ২০১০ সালে। উস্রী চাকরিতে কর্মরত রয়েছেন এবং সিডনিতে ১৫ বছর ধরে বসবাস করছেন।














Related Articles

Close