আন্তর্জাতিক

মসজিদে হামলার চারদিন পর ৬ জনের মরদেহ হস্তান্তর, স্বজনদের ক্ষোভ







ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলায় নিহতদের মরদেহ হস্তান্তর শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। গত শুক্রবারের হামলার চারদিন পর মাত্র ছয়জনের মরদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে নিউজিল্যান্ড পুলিশের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, মসজিদে হামলায় নিহতদের বেশিরভাগের পরিচয় শনাক্ত করা বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে। তবে এখন পর্যন্ত মোট ১২ জনের মরদেহ শনাক্ত করতে পেরেছে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। আর চিহ্নিত বারোটি মরদেহের মধ্যে ছয়টি তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।



ইসলামিক রীতি অনুযায়ী কেউ মৃত্যুবরণ করলে যত দ্রুত সম্ভব দাফন সম্পন্ন করতে হয়। বিশেষ করে ২৪ ঘন্টার মধ্যে মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা করার নিয়ম আছে। কিন্তু চারদিনও পরেও প্রিয়জনের মরদেহ না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নিহতদের পরিবারের সদস্যরা।



ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে হগিয়ে নিহত হন ২৩ বছর বয়সী মোহাম্মদ সাফির বাবা মতিউল্লাহ সাফি। মোহাম্মদ সফি তার বাবার মরদেহ এখনো হাতে না পাওয়ার কর্মকর্তাদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘মরদেহ হস্তান্তরের বিষয়ে কর্মকর্তারা কিছুই বলছেন না।’

আফগিনস্তান থেকে আসা সাফি বলেন, ‘তারা (কর্তৃপক্ষ) শুধু বলছে তারা তাদের নিয়মনীতি অনুসরণ করে লাশ হস্তান্তরে বিষয়ে কাজ করছেন। কিন্তু সেই প্রক্রিয়াটি কী? কেন আমি জানতে পারবো না যে সেই প্রক্রিয়াটা আসলে কী? আমি নিহতের সবচেয়ে নিকটাত্মীয় হয়েও আমার সঙ্গে তারা কোনো যোগাযোগ করছে না কেন?’



দেশটির পুলিশ বলছে, আমরা কালক্ষেপণের বিষয়ে নিহতদের পরিবারের ক্ষোভকে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছি। আমরা যেকোনো উপায়ে মরদেহের পরিচয় শনাক্ত হলেই তাদের পরিবারকে জানাবো। যত দ্রুত সম্ভব সব প্রক্রিয়া শেষ করে আমরা মরদেহ হস্তান্তরের বিষয়ে কাজ করা হচ্ছে বলেও জানান তারা।














Related Articles

Close