আন্তর্জাতিক

ব্রিটেনের ‘ডিভোর্স’ বিলে ইইউ’র সই








ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার (ব্রেক্সিট) চুক্তি অনুমোদন করেছেন ইইউ নেতারা। একই সঙ্গে এ চুক্তি প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মেকে সমর্থন দিতে ব্রিটিশদের আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

রোববার ব্রাসেলস সম্মেলনে ১ ঘণ্টারও কম সময়ের আলোচনায় ব্রেক্সিট চুক্তিতে সম্মত হন ইইডি’র ২৭ দেশের নেতারা। ১৮ মাসেরও বেশি সময়ের দ্বিপক্ষীয় আলোচনার পর বিচ্ছেদ প্রক্রিয়া সংক্রান্ত এ চুক্তি অনুমোদন পেল। সম্মেলনে যোগ দিতে তেরেসা শনিবার ইইউ’র সদর দফতর ব্রাসেলসে যান।



বিবিসি জানায়, শনিবার জিব্রাল্টার নিয়ে স্পেনের শেষ মুহূর্তের উদ্বেগ দূর হওয়ার পর চুক্তি অনুমোদন পাওয়ার পথে সব বাধা সরে যায়। পরে ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক টুইটারে নেতারা চুক্তিটি অনুমোদন করছেন বলে সবুজ সংকেত দেন।

চুক্তিটি এখন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে পাস হতে হবে। পার্লামেন্ট পাস হওয়া নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। চুক্তিটির বিরোধিতা করছেন বহু ব্রিটিশ এমপি। ইতিমধ্যে এই চুক্তি নিয়ে তেরেসার মন্ত্রিসভা থেকে কয়েকজন মন্ত্রীও পদত্যাগ করেছেন।



যুক্তরাজ্য ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ ইইউ থেকে বিচ্ছেদের তারিখ নির্ধারণ করেছে। ২০১৬ সালের জুনে অনুষ্ঠিত এক গণভোটে ইইউ ছাড়ার পক্ষে ৫১ দশমিক নয় শতাংশ ভোট পড়ার পর যুক্তরাজ্য ইইউ ছাড়ার শর্তগুলো নিয়ে আলোচনা শুরু করে।

এরপর দু’পক্ষে ২০ মাসেরও বেশি সময়ের আলোচনার পর এ ব্রেক্সিট চুক্তি হল। রোববার ইইউ নেতারা আনুষ্ঠানিকভাবে ৫৮৫ পৃষ্ঠার এ চূড়ান্ত চুক্তি করেন। এতে ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার বিভিন্ন নির্দেশনা রয়েছে। এছাড়াও আছে দু’পক্ষের ভবিষ্যৎ বাণিজ্য সম্পর্ক নিয়ে ২৬ পৃষ্ঠার একটি ঘোষণাপত্র। এ চুক্তির মধ্যে তিন হাজার ৯০০ কোটি ডলারের বিচ্ছেদ বিল, নাগরিকদের অধিকার এবং উত্তর আয়ারল্যান্ডের ব্যাকস্টপ নীতি অন্তর্ভুক্ত হবে।























Related Articles

Close