সিলেট ছাত্রলীগের সামনে কমিটি নামের মুলা!

0

বিয়ানীবাজার ভিউ২৪ ডটকম, ০৭ মে ২০১৮,

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মেলনের আর মাত্র তিনদিন বাকী থাকলেও এখনো ঘোষিত হয়নি সিলেটের চারটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিটের নতুন কমিটি। এ নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। গত তিন বছরে ‘নতুন কমিটি’ নামের খেলায় অনেক বিভ্রান্ত সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী অংসখ্য নেতাকর্মী।

অনেক নেতাকর্মী ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, নতুন কমিটি ঘোষণার নামে কেন্দ্র মুলা ঝুলিয়ে রেখেছে।

সিলেটে একের পর এক হত্যাকাণ্ড ও নানা অপকর্মের অভিযোগে ২০১৭ সালের শেষ দিকে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। এ পর্যন্ত দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও গ্রুপিংয়ে বলি হয়েছেন সাত কর্মী।

কমিটি বিলুপ্তির পর সিলেটে বুথ খুলে জেলার পদপ্রত্যাশীদের বায়োডাটা সংগ্রহ করেন কেন্দ্রীয় নেতারা।  তিন শতাধিক কর্মী কেন্দ্রে বায়োডাটা জমা দিলেও এ পর্যন্ত কমিটি ঘোষণা করা হয়নি।

জেলার নতুন কমিটিতে কারা আসতে পারেন সে আভাস অনেক আগে থেকে পাওয়া গেলেও কেন্দ্রীয় সম্মেলনের শেষ মূহুর্ত পর্যন্ত তাদের নাম ঘোষনা করা হয়নি।

অন্যদিকে মহানগর কমিটি থাকলেও আড়াই বছর ধরে চলছে চারজনের ওপর ভর করে। তিন বছর মেয়াদের কমিটির আড়াই বছরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। ২০১৫ সালের ২০ জুলাই চার সদস্যবিশিষ্ট মহানগর কমিটি ঘোষণার পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কথা বলা হয়েছিল।

মহানগর শাখার এক নেতা অভিযোগ করলেন- গত কমিটি করা হয়েছিলো আংশিক, দুই বছরের বেশি সময় পার হলেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেওয়া হয়নি। যোগ্যতা, কর্মী বান্ধবতা ও রাজপথের সাহসী ভুমিকা থাকার পরও অনেকেই জেলা কিংবা মহানগর কমিটিতে পদ লাভের আশা করেও পাননি। আর বর্তমান নতুন কমিটির যখন গুঞ্জন চলছে সিনিয়রের দোহাই দিয়ে কমিটিতে থেকে বাদ পড়তে পারেন ।

এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির মেয়াদের শেষ দিকে ঘোষিত হচ্ছে শাবিপ্রবি ও সিকৃবি ইউনিট ছাত্রলীগের নতুন কমিটি। কমিটিগুলো ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছে।

তবে জল্পনার কেন্দ্রবিন্দু বৃহত্তম এ ছাত্র সংগঠনটির সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার  শীর্ষ চার পদের নেতৃত্বে কারা আসছেন। নাকি কমিটি নামের ‘মুলা’ নিয়েই কেন্দ্রের যত ব্যস্ততা।

Share.

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.