লন্ডনে টাওয়ার হ্যামলেটসের স্পীকারের দায়িত্ব গ্রহন করলেন সিলেটের আয়াছ

0

বিয়ানীবাজার ভিউ২৪ ডটকম, ২৫ মে ২০১৮,

টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন লেবার পার্টি কাউন্সিলার আয়াছ মিয়া। লন্ডনের বাঙ্গালী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটস বারায় গত ৩রা মে’র স্থানীয় সরকার নির্বাচনে লেবার পার্টি বিশাল বিজয়ের পর কাউন্সিলের নতুন মেয়াদের প্রথম অধিবেশনে স্পীকার নির্বাচিত হলেন কাউন্সিলার মো: আয়াছ মিয়া। ২৩ মে বুধবার বিকাল সাড়ে ৬টায় মালব্যারী পেলেইসের টাউন হলে ফুল কাউন্সিল মিটিংয়ে তার এই নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

স্পিকারের দায়িত্ব পাওয়ার পর তিনি তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, বাংলাদেশী কমিউনিটিকে আরো এগিয়ে নিতে এবং তাদের অর্জনগুলিকে তুলে ধরতে সার্বিক চেষ্টা চালিয়ে যাবেন। তিনি বারার নির্বাহী মেয়র জন বিগসসহ সকল বাসিন্দাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। বিশেষ করে তিনি যে ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয়েছেন তাদের প্রতি। তিনি বলেন, দায়িত্ব হবে বারার ফাস্ট সিটিজেন হিসেবে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলকে প্রমোট করা, কাউন্সিলের একজন দূত হিসেবে অন্যান্য কাউন্সিলে প্রতিনিধিত্ব করা। তিনি কমিউনিটি ও কাউন্সিলকে ঐক্যবদ্ধ করে কাউন্সিলের অর্জনগুলিকে তুলে ধরবেন বলে তিনি জানান। ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য কাজ করার পাশাপাশি চ্যারিটি কাজে আরো বেশি গুরুত্ব দিবেন বলে জানান।

তার দায়িত্ব গ্রহনের সময় কমিউনিটির সর্বস্থরের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় দুই এমপি রুশনারা আলী ও জিম ফিজপেট্রিক।

এর আগে কাউন্সিল অধিবেশনের প্রথম অংশে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন বিদায়ী স্পিকার টাওয়ার হ্যামলেটস এর প্রথম বাংলাদেশী মহিলা স্পিকার কাউন্সিলার সাবিনা আক্তার। এসময় মেয়র জন বিগসসহ উপস্থিত একাধিক কাউন্সিলার তার বিগত বছরে স্পিকারের দায়িত্বে ভূয়শী প্রশংসা করেন।

এদিকে আয়াস মিয়া গত মেয়াদেও কাউন্সিলার নির্বাচিত হয়ে এনভায়রনমেন্ট ও ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে কেবিনেট মেম্বার হিসেবে দক্ষতার স্বাক্ষর রাখেন। সর্বশেষ তিনি ডেপুটি স্পীকারের দায়িত্বে ছিলেন।

সিভিক মেয়রের সম মর্যাদায় অভিষিক্ত স্পিকার কাউন্সিলার মো: আয়াছ মিয়ার বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের ধরারাই (মোল্লা বাড়ি) গ্রামে। তার পিতার নাম মোহাম্মদ আবুল হোসেন। তিনি দেওকলস দ্বি পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক পরিক্ষায় প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে লন্ডনে পাড়ি জমান। লন্ডনে একাউন্টিং বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রী অর্জন করে বর্তমানে তিনি এ এম একাউন্ট্যান্টস এর প্রিন্সিপাল একাউন্ট্যান্ট হিসেবে কমিউনিটির সেবা করে যাচ্ছেন।

এদিকে স্পীকারের দ্বায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে রেওয়াজ অনুযায়ী কাউন্সিল মিটিং পরবর্তী এক অভ্যর্থনা ও ভোজ সভা/ইফতার সন্ধ্যা ৯টা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মেয়র, ডেপুটি মেয়র, কেবিনেট মেম্বার, কাউন্সিলার বৃন্দ, সাংবাদিক, কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, কাউন্সিলের কর্মকর্তা সহ কমিউনিটির বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় একাদিক সংগঠনের পক্ষ থেকে নব নির্বাচিত স্পিকারকে ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানান।

উল্লেখ্য গত ২০১৪ সাল থেকে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশীরা। এর আগেও অনেকেই স্পিকার ও মেয়রের দায়িত্ব পালন করলেও ২০১৪ সাল থেকে এই পদে বাংলাদেশীরাই একটানা দায়িত্ব পালন করছেন। এর মধ্যে ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ সেশনে ২বার দায়িত্ব পালন করেন কাউন্সিলার আব্দুল মুকিত এমবিই, ২০১৬-১৭ সেশনে ছিলেন সাবেক কাউন্সিলার খালিছ উদ্দিন আহমদ, ২০১৭-১৮ সেশনে দায়িত্বে রয়েছেন কাউন্সিলার সাবিনা আক্তার। আর ২০১৮-১৯ সেশনে দায়িত্ব পালন করবেন কাউন্সিলার আয়াছ মিয়া।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.