মার্কিন কংগ্রেসে প্রথম মুসলিম নারী

0

বিয়ানীবাজার ভিউ২৪ ডটকম, ০৯ আগস্ট ২০১৮,

রাশিদা তিলাইবের জীবনে প্রথম হওয়ার অনেক অভিজ্ঞতাই আছে। ফিলিস্তিনি অভিবাসী পরিবারের মেয়ে হিসেবে তাঁর পরিবারে তিলাইবই প্রথম হাইস্কুল ডিপ্লোমা অর্জন করেন। তারপর কলেজ ডিগ্রি ও নিয়েছেন।

মিশিগান আইনসভায় তিলাইব ছিলেন প্রথম নির্বাচিত মুসলিম নারী। এ পদে তিনি তিনি সর্বোচ্চ ছয় বছর দায়িত্ব পালন করেন। এই জানুয়ারিতে তিলাইব আমেরিকার প্রথম মুসলিম কংগ্রেসওম্যান হতে যাচ্ছেন।

এনপিআরের এক খবরে বলা হয়, ডেট্রয়েটের অধিবাসী ৪২ বছর বয়সী তিলাইব, যাঁর বাবা ফোর্ড কারখানায় কাজ করতেন, মিশিগানে ডেমোক্রেটিক প্রাইমারিতে জয়লাভ করেন এবং এই হেমন্তে ইউএস হাউস নির্বাচনে অপ্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হিসেবে প্রতিযোগিতা করার অধিকার অর্জন করেন।

এক টুইট বার্তায় রাশিদা তিলাইব বলেন, ‘আমি কিছু বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। কংগ্রেসে আপনাদের স্বার্থরক্ষায় লড়ার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।’

রাশিদা তিলাইব সাবেক রিপ্রেজেনটেটিভ জন কনেয়ার্সের স্থলাভিষিক্ত হলেন। দীর্ঘদিনের কংগ্রেসম্যান ও নাগরিক অধিকার আইকন কনেয়ার্স গত বছর তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠলে পদত্যাগ করেন।

কংগ্রেস নির্বাচনে আরো কয়েকজন মুসলিম নারী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে ওই সব ডিস্ট্রিক্টে এখনো প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হয়নি। তাদের মধ্যে রয়েছেন মিনেসোটা স্টেট রিপ্রেজেনটেটিভ ইলহান ওমর, আরিজোনা থেকে সিনেটে লড়ছেন ডিড্রা আবুদ এবং ম্যাসাচুসেটসের তাহিরা আমাতুল-ওয়াদুদ।

মিনেসোটার রিপ্রেজেনটেটিভ কিথ এলিসন কংগ্রেসে প্রথম নির্বাচিত মুসলিম প্রতিনিধি; ইন্ডিয়ানার রিপ্রেজেনটেটিভ অন্ড্রে কার্সন দ্বিতীয়। উভয়ই কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষ। এর অর্থ, রাশিদা তিলাইব কংগ্রেসে দেশের প্রথম আরব-আমেরিকান মুসলিম হতে যাচ্ছেন।

Comments are closed.