সিলেট

শপথ নেবেন সুলতান, মোকাব্বির







অবশেষে অবসান হতে যাচ্ছে সকল জল্পনা-কল্পনার। শপথ নিতে যাচ্ছেন গণফোরামের দুই দলীয় সাংসদ সিলেট-২ আসনের মোকাব্বির খান ও মৌলভীবাজার-২ আসনের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। তাদের শপথ গ্রহণের ব্যাপারে ইতিবাচক ইঙ্গিত দিয়েছেন দলটির শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

শনিবার বিকেলে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘শপথ গ্রহণের ক্ষেত্রে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবে গণফোরাম।’



ড. কামালের এমন বক্তব্যের পর সুলতান ও মোকাব্বিরের শপথ গ্রহণ নিয়ে সৃষ্টি হওয়া ধূ¤্রজাল অনেকটাই কেটে গেছে বলে মনে করছে রাজনীতি সচেতন মহল।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসন থেকে গণফোরামের দলীয় প্রতীক উদীয়মান সূর্য নিয়ে প্রায় ৩০ হাজার ভোটের ব্যবধানে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহিবুর রহমানকে পরাজিত করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী মোকাব্বির খান। ওই আসনে শুরুতে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ছিলেন ইলিয়াসপত্মী তাহসিনা রুশদীর লুনা। তার মনোনয়ন বাতিল হয়ে যাওয়ায় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে সমর্থন দেয়া হয় মোকাব্বির খানকে।



আর হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মাধ্যমে মৌলভীবাজার-২ আসনে সাংসদ নির্বাচিত হন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। প্রায় দুই হাজার ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এম এম শাহীনকে পরাজিত করে সাংসদ নির্বাচিত হন সদ্য গণফোরামে যোগদানকারী আওয়ামী লীগের সাবেক এ নেতা।



গণফোরামের এ দুই প্রার্থী বিজয়ী হলেও তাদের শপথ গ্রহণ নিয়ে দেখা দেয় অনিশ্চয়তা। বিশেষ করে ঐক্যফ্রন্টের নেতৃত্বদানকারী দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিএনপির নির্বাচিত প্রার্থীরা শপথ গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত জানানোর পর সুলতান ও মোকাব্বিরের শপথ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। তবে শেষ পর্যন্ত ড. কামাল হোসেনের ইতিবাচক সিদ্ধান্তে সুলতান ও মোকাব্বিরের সংসদে যাওয়ার পথ খুলেছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।














Related Articles

Close